[english_date], [bangla_time]

শিরোনাম:

আবরার হত্যাকাণ্ড: মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনা

রাজধানীসহ সারাদেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৩২টি ভেন্যুতে সরকারি বেসরকারি মেডিকেল কলেজের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে আজ শুক্রবার। এদিকে, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় উত্তাল রাজধানী।

এ অবস্থায় মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনা দিয়েছে আন্দোলনকারীরা।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) গণমাধ্যমকে দেয়া নির্দেশনায় তারা বলেন, এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা এমন সময়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে যখন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় উত্তাল রাজধানী। মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার্থীদের পলাশী মোড় থেকে বুয়েট মেইন গেট হয়ে বকশীবাজার পর্যন্ত রাস্তা পরিহার করার জন্য অনুরোধ করছি। আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে আমাদের আন্দোলন আগামীকালও অব্যাহত থাকবে।

জানা গেছে, এবারের পরীক্ষায় অংশ নেবে মোট ৭২ হাজার ৯২৮ ভর্তীচ্ছু শিক্ষার্থী। গত বছরের তুলনায় এবার সাত হাজার ৯ জন বেশি। ৩৬টি সরকারি এবং ৭০টি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজের মোট আসনসংখ্যা ১০ হাজার ৪০৪। এর মধ্যে এবার ঢাকা মহানগরের পাঁচটি কেন্দ্রের ১১টি ভেন্যুতে ৩৫ হাজার ৯৮৫ জন এবং ঢাকার বাইরে ১৫টি জেলায় ৩৬ হাজার ৯৪৩ জন পরীক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের অধীনে কেন্দ্রীয়ভাবে অনুষ্ঠিত এবারের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় সরকারি চার হাজার ৬৮টি ও বেসরকারি ছয় হাজার ৩৩৬টিসহ ১০ হাজার ৪০৪টি আসনের বিপরীতে মোট ৭২ হাজার ৯২৮ জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবেন।

১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নে পদার্থবিদ্যায় ২০, রসায়নে ২৫, জীববিজ্ঞানে ৩০, ইংরেজিতে ১৫ এবং বাংলাদেশের ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সাধারণ জ্ঞানে ১০ নম্বর থাকবে।