[english_date], [bangla_time]

শিরোনাম:

ফেসিয়াল রিকনস্ট্রাকটিভ সার্জারি চিকিৎসায় শেভরন

আনুষ্ঠানিকভাবে রোটাপ্লাষ্ট ইন্টারন্যাশনাল মিশন কার্যক্রম সমাপ্তি উপলক্ষে শেভরন বাংলাদেশ সিলেটের একটি হোটেলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। মিশন কার্যক্রম অংশ হিসেবে ৭০ জন রোগী যাদের অধিকাংশ শেভরন জালালাবাদ গ্যাস ফিল্ডের কাছাকাছি বসবাস করে তারা বিনামূল্যে ঠোট-কাটা, তালু-কাটা, অন্যান্য মুখের সমস্যা এবং আগুনে পোড়া ইত্যাদি জীবন পরিবর্তনকারী সার্জারি চিকিৎসা গ্রহণ করে।
১০ দিন ব্যাপী মিশনটি পার্ক-ভিউ মেডিকেল কলেজ এবং জালালাবাদ রোটারি ক্লাবের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে শেভরন বাংলাদেশ স্পন্সর করে। ২৫ জনের বেশী মেডিকেল এবং নন-মেডিকেল ভলান্টিয়ার্স সিলেট মিশনে অংশগ্রহণ করে।

টিমে অন্যান্যদের মধ্যে কাজ করেন রিকনস্ট্রাকটিভ প্লাস্টিক সার্জন, এনেসথিসিওলজিস্ট, পেডিয়াট্রিশিয়ান, স্পিচ প্যাথোলজিস্ট, অর্থোডন্টিস্টস এবং নার্সরা যারা সবাই ভলান্টিয়ার হিসেবে কাজ করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জনাব আরিফুল হক চৌধুরী, মেয়র সিলেট সিটি কর্পোরেশন, ডাঃ আনেড়ব ডিলানে, মেডিকেল টিম লিডার- রোটাপ্লাষ্ট, ডাঃ মনজুরুল হক চৌধুরী, ভূতপূর্ব গভর্নর- রোটারি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ এবং প্রধান সমন্বয়কারী রোটাপ্লাষ্ট মিশন ২০১৯, শেভরনের কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স বিভাগের পরিচালক ইসমাইল চৌধুরী, শেভরন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট নিল মিনগাস।

আরও উপস্থিত ছিলেন ডাঃ আবদুস সালাম, পরিচালক, পার্ক-ভিউ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, যেখানে সার্জারিগুলো সম্পূর্ণ করা হয়।

রোটাপ্লাস্ট ইন্টারন্যাশনাল হলো যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রান্সিসকো রোটারি ক্লাবের একটি অলাভজনক জনহিতকর প্রকল্প, যা বিশ্বব্যাপী শিশুদের ঠোট-কাটা, তালু-কাটা সমস্যা সমাধানে বিনামূল্যে চিকিৎসা ও প্রশিক্ষণ দিতে মাল্টিডিসিপ্লিনারী মেডিকেল টিম পাঠিয়ে থাকে। সংস্থাটি স্থানীয় পেশাজীবী, রোটারিয়ানস এবং অন্যান্য সংগঠনের সঙ্গে কাজ করে থাকে এবং ঠোট-কাটা, তালু-কাটা প্রতিরোধকল্পে শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম সহায়তা দিয়ে থাকে।